আন্তর্জাতিক মূকাভিনয় উৎসব ২০১৭

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হয়েছে আন্তর্জাতিক মূকাভিনয় উৎসব। প্রাচীন শিল্প মাধ্যম মূকাভিনয়কে ধারণ ও লালনকারী প্রতিষ্ঠান ঢাকা ইউনিভার্সিটি মাইম অ্যাকশন (ডুমা)র আয়োজনে এই উৎসব অনুষ্ঠিত হয় ১৭ থেকে ১৯ এপ্রিল, ২০১৭ পর্যন্ত।

বর্ণাঢ্য মূকাভিনয় উৎসবে অংশ নেয় জাপান, শ্রীলংকা, ভারত, নেপাল, চীন, ভুটানের জনপ্রিয় শিল্পীরা। এছাড়াও অংশ নিয়েছে বাংলাদেশে মূকাভিনয় চর্চারত দল যথা- মুক্তমঞ্চ নির্বাক দল (গাজিপুর), জেন্টেলম্যান প্যান্টোমাইম (ঢাকা), জাহাঙ্গীরনগর থিয়েটার, মাইম আর্ট (ঢাকা), বেঙ্গল থিয়েটার (ঢাকা), সাইলেন্ট থিয়েটার (চট্টগ্রাম), প্রভাতফেরি (চুয়েট), নর্থ-সাউথ ইউনিভার্সিটি মাইম সোসাইটি, জগন্নাথ ইউনিভার্সিটি মাইম সোসা্ইটি, মাইম অ্যাকশন ময়মনসিংহ সহ মোট ১০টি মূকাভিনয় দল।

প্রতিদিন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে উৎসবের মূল আয়োজন করা হয়। এছাড়াও শহীদ মিনার, কার্জন হল, কলাভবন, শাহবাগ সহ পুরো ক্যাম্পাসজুড়েই ছিলো স্ট্রিট শো। তিন দিনের আয়োজনে ছিলো মূকাভিনয়ের উপর কর্মশালা, সেমিনার, স্কুল ও কলেজ পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের নিযে মূকাভিনয় প্রতিযোগিতা এবং পোস্টার প্রদর্শনী।

১৭ এপ্রিল সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত নেপালের অ্যাম্বাসেডর ধান বাহাদুর অলী (Dhan Bahadur Oli)। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য় অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মূকাভিনয় প্রদর্শনী করে আয়োজক দল ঢাকা ইউনিভার্সিটি মাইম অ্যাকশন।

তিন দিনের উৎসবে প্রতিদিন সন্ধ্যায় সাড়ে ছয়টায় ছিল দেশি-বিদেশি বিভিন্ন দলের মূকাভিনয় প্রদর্শনী। ১৯ এপ্রিল রাত ৯টায় অংশগ্রহণকারী দল এবং প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণের মাধ্যমে সমাপ্ত হয় আন্তর্জাতিক মূকাভিনয় উৎসব।

প্রতিদিনের অনুষ্ঠানে জাতীয় সসংস সদস, দেশের খ্যাতনামা সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, শিক্ষাবি উপস্থিত থেকে তিন দিনের এই উৎসবকে অর্থবহ করে তোলেন।

২০১১ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি “না বলা কথাগুলো না বলেই হোক বলা” স্লোগান বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মীর লোকমানের হাত ধরে যাত্রা শুরু করে মূকাভিনয় সংগঠন ‘ঢাকা ইউনিভার্সিটি মাইম অ্যাকশন। পথচলার মাত্র ৬ বছরে সংগঠনটি অনেকগুলো জাতীয় মূকাভিনয় উৎসব আয়োজন সহ দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, বিভাগ ও জেলা শহরে ৩ শ এর অধীক মূকাভিনয় প্রদর্শনী করেছে। একই সঙ্গে পুরস্কৃত হয়েছে আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও সুনাম কুড়িয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় সংগঠনটি প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক এই উৎসব আয়োজন করে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*