চলে গেলেন মূকাভিনয় শিল্পী ফরহাদ হাসান মিঠু

সবাইকে কাঁদিয়ে চলে গেলেন মূকাভিনয় শিল্পী ফরহাদ হাসান মিঠু। তিনি বৃহস্পতিবার (১৭ ডিসেম্বর) ভোর ৪টা ২০ মিনিটে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। এ তথ্য নিশ্চিত করে ফরহাদ হাসান মিঠুর দীর্ঘদিনের সহকর্মী ম. আবু হারুন টিটু। তিনি বলেন, এদিন রাত সাড়ে ৩টার দিকে মিঠু ভাই বুকে প্রচন্ড ব্যথা অনুভব করেন। তার নিঃশ্বাস নাকি বন্ধ হয়ে যাচ্ছিল। পরে তার এক ছোট ভাইকে ফোন করে শারীরিক অবস্থার কথা জানান। তারা দ্রুত এসে দেখেন, জানালার গ্রিল চাপ দিয়ে ধরে আছেন মিঠু ভাই। পরে উবার কল করে হার্ট ফাউন্ডেশনে নিয়ে যাওয়ার জন্য রওনা হন। কিন্তু হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই মিঠু ভাই মারা যান। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে আল মারকাজুলে মিঠুর মরদেহ গোসল করানো হয়। পরে তার মরদেহ গ্রামের বাড়ি বগুড়ায় পাঠানো হয়। সেখানে বাদ আসর এই মাইমশিল্পীর দাফন সম্পন্ন হয়েছে বলে জানান টিটু।

১৬ ডিসেম্বর রাতেও মিঠুর সঙ্গে কথা বলেন টিটু। বিষয়টি উল্লেখ করে তিনি বলেন, ১৬ ডিসেম্বর রাতে আমি রেডিওতে লাইভ অনুষ্ঠান করছিলাম। এর মধ্যে মিঠু ভাই বার বার ফোন করছিলেন ফার্মগেট যেতে। কিন্তু অনুষ্ঠান থাকায় আমি যেতে পারিনি। পরে নাট্যকার মহিউদ্দিন ছড়া ভাই ও মিঠু ভাই আড্ডা দেন। মিঠু ভাই আরো আড্ডা দিতে চাচ্ছিলেন। কিন্তু ছড়া ভাই বাসায় ফেরার কথা বললে মিঠু ভাই বলেন, বাসায় গেলে বিরক্ত লাগে। পরে ছড়া ভাই রাত ১০টার দিকে তাকে বাসায় পাঠিয়ে দেন। মূকাভিনয়ের প্রতি ফরহাদ হাসান মিঠুর অকৃত্রিম ভালোবাসা ছিল। বিষয়টি উল্লেখ করে টিটু বলেন, আসলে মাইমের কাজ না থাকার কারণে মিঠু ভাইয়ের মধ্যে এক প্রকার খেদোক্তি ছিল।

সারা দেশে শৈল্পিক মাইম করার পরিকল্পনা করেছিলেন মিঠু ভাই। আগামী জানুয়ারি থেকে দেশের বিভিন্ন জেলায় কাজটি শুরুর চিন্তা করেছিলেন। আর এ চাওয়াটা তার ভেতরে গভীরভাবে তাড়না দিতো। প্রাণ দিয়ে কীভাবে মূকাভিনয় করতে হয় সেটা জানতেন মিঠু ভাই। কিন্তু তার লালিত স্বপ্ন পূরণের আগেই চলে গেলেন! ফরহাদ হাসান টিটু রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। মূকাভিনয় বিষয়ে ডিপ্লোমা ডিগ্রি নিয়েছিলেন তিনি। মাঝে দীর্ঘ সময় দেশের বাইরে ছিলেন। ইতালি, নরওয়েতে তিনি শো করেছেন। বাংলাদেশ মাইম এসোসিয়েশনের আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করেছেন মিঠু। মাইম ওয়ার্ল্ড এর পক্ষ থেকে এই গুণি শিল্পীর আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*